নতুন খবর

দলিত হিন্দু বরকে নিজের ঘোড়া দিল রাজপুতানা হিন্দু! বলল- আমরা সবাই হিন্দু কোনো ভেদাভেদ নেই।

ভারতের বেশিরভাগ মিডিয়া দেশে হিন্দুদের জাতিগত ঘৃণাকে উস্কানি দেয়। হিন্দুদের থেকে দলিত সমাজকে আলাদা দেখানো এবং ছোট ঘটনাকে হাইলাইট করা মিডিয়ায় মূল কাজ। কোন ঘটনা জাতিগত পরিপ্রেক্ষিতে না ঘটলেও কিছু মিডিয়া সেটাকে দলিত বনাম হিন্দু করে তোলে। যাতে হিন্দু সমাজের বিভাজন করে হিনুদের দুর্বল করা যায়। তবে মিডিয়া এই সমস্ত কাজ নিজের ইচ্ছা অনুযায়ী করে না। বিদেশী ফান্ডিং নিয়ে মিডিয়া ভারতীয় হিন্দুদের দুর্বল করার ষড়যন্ত্র খেলে।

কিন্তু ইতিবাচক খবরগুলি মিডিয়ায় কখনোই দেখায় না। বরং সেই খবরগুলিকে মিডিয়া লুকিয়ে রাখে। গুজরাটের ভাবনগরে এক রাজপুত হিন্দু এক দলিত হিন্দুকে নিজের ঘোড়া দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। দলিত ব্যাক্তির বিয়ে ছিল, সেই সময় রাজপুত ব্যাক্তি নিজের ঘোড়া দিয়ে বলে আমরা সব হিন্দু আমাদের মধ্যে কোনো ভেদাভেদ নেই।

ভাবনগর জেলার গরিয়াধার তহশীলের বেলাবাদার গ্রামের এক দলিত যুবকের বরযাত্রী বের করা নিয়ে চিন্তিত ছিল দলিত ব্যাক্তির পিতা। সেই সময় কাটি ক্ষত্রিয় রাজপুতানা সমাজের ব্যাক্তি নিজের ঘোড়া দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়। যে গ্রামের এই ঘটনা, সেখানে রাজপুতনা বাড়ির সংখ্যা ১৫০ এবং দলিত বাড়ির সংখ্যা ১০ টি। কিন্তু রাজপুতানা ব্যাক্তি জাতির উপরে উঠে হিন্দু হয়ে আরেক হিন্দুর পাশে দাঁড়ায়। দ্বিগরাজ সিং গোহেল নামের ব্যাক্তি জিগনেস ডি বানজারা নামের ব্যক্তিকে নিজের ঘোড়া দেন। দ্বিগরাজ সিং গোহেল বলেন, আমরা সকলে হিন্দু আমাদের মধ্যে কোনো বিভেদ নেই।

এই ঘটনা হিন্দু একতার বড় উদাহরণ পেশ করেছে। দেশের মধ্যে কোথাও ছোট খাটো বিভেদ ঘটলে মিডিয়া তা হাইলাইট করে কিন্তু একতার ঘটনা মিডিয়া লুকিয়ে রাখে। এই ঘটনাকেও মিডিয়া লুকিয়ে দিয়েছিল কিন্তু বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ায় যুগ হওয়ার কারণে খবর ছড়িয়ে পড়ে।

Source link

Tags

Related Articles

Close