নতুন খবর

ফোনের মাধ্যমে সভা করে মমতার বিদায়ী ঘণ্টা বাজালেন হিন্দু বীর যোগী আদিত্যনাথ, দেখুন কি কি বললেন উনি?

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের হেলিকপ্টার নামার অনুমতি দিলো না পশ্চিমবঙ্গের মমতা সরকার! তারপর উনি ফোনের মাধ্যমে সভায় বক্তৃতা রাখেন। ফোনে জনসভায় কথা বলার সময় যোগী বলেন, ‘আমি নির্ধারিত সময়েই সভায় যোগ দিতাম, কিন্তু তৃণমূল ভয়ে আমাকে সভা করতে দেয়নি। আর সেই জন্যই মোদীজির ডিজিট্যাল ইন্ডিয়ার মাধ্যমে আমি আপনাদের সন্মুখে পৌঁছালাম” উনি বলেন, ‘ বাংলার মমতা ব্যানার্জীর নেতৃত্বে থাকা তৃণমূল সরকার গণতন্ত্র বিরোধী এবং জন সাধারণ বিরোধী”

উনি বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের প্রশাসন তৃণমূল কংগ্রেসের ক্যাডারের মত কাজ করছে” মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ফোনের মাধ্যমে সভাকে সম্বোধিত করার সময় বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের সরকার অরাজকতাকে সমর্থন করে রাষ্ট্রীয় সুরক্ষার সাথে ছিনিবিনি খেলছে। এই সরকার বিজেপিকে চরম ভয় পায়, তাই মমতা ব্যানার্জীর সরকার প্রথমে অমিত শাহ-এর রথযাত্রা আর এখন আমাকে আটকানোর চেষ্টা করল। আমি গোটা পশ্চিমবঙ্গের মানুষকে মমতা ব্যানার্জীর এই অগণতান্ত্রিক এবং অরাজকতার সরকারের বিরুদ্ধে লড়ার জন্য আবেদন করছি”

উনি বলেন, ‘আমরা সবাই আপনার সাথে আছে। এই রাজ্যে গণতন্ত্র না থাকলেও আপানদের আওয়াজ এই অরাজক সরকার বন্ধ করতে পারবে না। মমতার সরকারের আমলে আমাদের দলের মানুষদের রাস্তা ঘাটে খুন হতে হচ্ছে” উনি বলেন, মমতা ব্যানার্জীর সরকার দুর্গা পুজার সময় হিন্দুদের মনোভাবে আঘাত দিয়ে কাজ করে। কিন্তু হাইকোর্টের কাছে উনি অসহায়, তাই হাইকোর্টের নির্দেশে এরাজ্যে এখনো হিন্দুরা মাথা তুলে দাঁড়াতে পারছে। উনি এও বলেন যে, মমতা ব্যানার্জীর সরকার সংবিধানের পালন করেন না।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের আজ এরাজ্যে দুটি সভা হওয়ার কথা ছিল, কিন্তু যোগীর হেলিকপ্টার এরাজ্যের মাটিতে না নামতে দেওয়ার জন্য আজ উনি ফোনের মাধ্যমে সভা করতে বাধ্য হন। যোগী আদিত্যনাথের আপ্ত-সহায়ক মৃত্যুঞ্জয় কুমার বলেন, ‘উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের লোকপ্রিয়তাকে ভয় পেয়েই মমতা ব্যানার্জী আজ এই সভা করতে দেননি”

Source link

Tags

Related Articles

Close