নতুন খবর

বেকারত্বের দিক দিয়ে দেশে প্রথম স্থান অধিকার করলো পশ্চিমবঙ্গ

কোনোদিন স্কুলের চৌকাঠ পেরোই নি অথচ চাকরির খোঁজ এই নিরিখে দেশের মধ্যে আমাদের রাজ্য দখল করেছে শীর্ষস্থান। ভালোভাবে স্কুলের গন্ডি পার করে উঠতে পারেনি কিন্তু তার সত্ত্বেও তাদের চাকরি চাই এমন ছেলেমেয়ের সংখ্যা এই রাজ্যে ৩৩ হাজার ৩ শ ৩৭ জন। এমনই রিপোর্ট এইদিন প্রকাশ করল কেন্দ্রীয় সরকারের শ্রম মন্ত্রক। তাদের রিপোর্টে এটা পরিস্কার ভাবে উল্লেখ করে দেওয়া হয়েছে যে, সারা দেশজুড়ে স্কুল না যাওয়া যতজন কর্মপ্রাথী রয়েছে তাদের মধ্যে শুধুমাত্র এইরাজ্যেরই ৫০.০৭ শতাংশ।রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, গত আর্থিক বছরে মোট ৬৬ হাজার ৫৮২ জন এমন কর্মপ্রাথী চাকুরীর জন্য নাম লিখিয়েছেন যারা কোনোদিন স্কুলে পর্যন্ত যায় নি।

আর আমাদের রাজ্যে ১ লক্ষ ৩৮ হাজার ৮৬৪ জন প্রাথী শুধুমাত্র নবম শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশোনা করেই চাকুরীর জন্য নাম লেখাতে শুরু করে দিয়েছেন বিভিন্ন কর্মসংস্থান কার্যালয়ে।দশম শ্রেণী পাশ করে কাজের জন্য নিজের নাম নথিভুক্ত করার দিক দিয়ে গোটা দেশে সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৭ লক্ষ ২৯ হাজার ৯০৫ জন। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে শুধুমাত্র আমাদের রাজ্যেই সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৩৪ হাজার ৭৩ জন। যেটা সমগ্র দেশের নিরিখে বিচার করলে দেখা যাবে ৯.৮০ শতাংশ। এছাড়াও রাজ্যে এমন ১৮৭৮ জন প্রাথী রয়েছেন যারা একাদশ শ্রেণী পাশ করার পরই চাকরি খুঁজছেন। এটা দেশের শতকরা বিচার করলে দেখা যাবে ২৯.৮৪ শতাংশ।

উল্লেখ্য, স্কুল না গিয়ে চাকরি খোঁজার দিক দিয়ে বিচার করলে দেখা যাবে সেটা ২০১৬-১৭ সালে অনেকটাই কম ছিল। সেই সময় এই হার ছিল মাত্র ২.২৬ শতাংশ। কিন্তু বর্তমানে অর্থাৎ মাত্র এক বছরের মধ্যে সেই সংখ্যা ৪৮ শতাংশ বেড়ে গিয়ে এক লাফে ৫০ শতাংশে দাড়িয়েছে। এর ফলে স্বাভাবিক ভাবেই সকলের মধ্যে উদ্বেগ দেখা গিয়েছে।চাকরিজীবী সংখ্যার দিক দিয়েও রাজ্যের অবস্থা খুব একটা ভালো নেই এই মুহুর্তে। রাজ্যে চাকরি করার শতকরা হার যেখানে ১.১৫ শতাংশ সেখানে দাঁড়িয়ে চাকরি না করার হার গিয়ে ঠিকেছে ১১.৫৯ শতাংশ।

স্কুলে না গিয়ে চাকরি খোঁজার দিক দিয়ে রাজ্য ভিত্তিক পরিসংখ্যান দেখলে দেখা যাবে গুজরাটে ০.০৩ শতাংশ, পাঞ্জাব ০.৭৮ শতাংশ, বিহার ০.৭৪ শতাংশ, অসম ০.০১ শতাংশ, উত্তরপ্রদেশ ১০.৩৭ শতাংশ আর সবাই কে ছাপিয়ে একেবারে উপরে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ, সমগ্র দেশের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের শতকরা হার ৫০.০৭ শতাংশ।
#অগ্নিপুত্র

Source link

Tags

Related Articles

Close