নতুন খবর

আতঙ্কে চীন-পাকিস্থান! ভারতীয় এয়ারফোর্স এর জন্য বিশেষ পরিকল্পনা মোদী সরকারের।

ভারত সরকার দেশের বিভিন্ন রাজ্যে ২৯ টি ল্যান্ডিং জোন তৈরি করতে চলেছে। আপৎকালীন স্থিতিতে লড়াকু বিমানের ল্যান্ডিং এর জন্য এই ল্যান্ডিং জোন গুলি তৈরি করেছে। যুদ্ধকালীন সময়ে বা বিপর্যয়ের সময়ে যুদ্ধ বিমান নামানোর জন্য এই জোনগুলি ব্যাবহার করা হবে। প্রস্তাবিত জোনগুলি জম্মুকাশ্মীর, পাঞ্জাব, হরিয়ানা,উত্তরাখণ্ড,মনিপুর পশ্চিমবঙ্গ এর মত স্থানে তৈরি করা হবে। এছাড়া তিন প্রস্তাবিত প্রজেক্ট উড়িষ্যা, ঝাড়খন্ড ও ছত্রিশগড়কে জুড়ে দেওয়া রাস্তার উপর নির্মাণ করা হবে। দক্ষিণের রাজ্যে তামিলনাড়ু ও অন্ধ্রপ্রদেশেও এই প্রজেক্ট সম্পুর্ন করা হবে। সড়ক পরিবহন মন্ত্রী এবং বিমান মন্ত্রণালয়ের সম্মিলিত আলোচনায় এই পস্তাব ২০১৬ সালে রাখা হয়েছিল। ভারতীয় বায়ু সেনাকে এই বিষয়ের উপর পর্যবেক্ষণ করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এই কার্যকে সম্পূন করার শেষ সময় ৮ মাস রাখা হয়েছে। জমি বাছাই এবং ল্যান্ডিং এর জন্য উপযুক্ত পরিবেশ দেখার কাজ সম্পূর্ণ করা হয়েছে। ২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে এক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানিয়েছিলেন যে ১৩ টি সড়কের জন্য জমি দেখার কাজ হয়ে গিয়েছে। এই ১৩ টির মধ্যে ১১ টি ন্যাশনাল সড়ক এবং ২ টি স্টেট সড়ক।

জানিয়ে দি কেন্দ্র সরকার বিমান ল্যান্ডিং করানোর জন্য যে ধরণের সড়ক নির্মাণ করছে এই ধরণের সড়ক ভারতে একটাই রয়েছে। উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের লখনউতে এই ধরণের বিমান ল্যান্ডিং করার ব্যবস্থা রয়েছে। লখনউ এর আগ্রা এক্সপ্রেসওয়েতে এই ব্যাবস্থা রয়েছে।

বায়ু সেনার প্রাক্তন প্রমুখ বলেছেন, সরকারের এই চিন্তাভাবনা সকলের স্বাগত জানানো উচিত। উনি বলেন এটা খুবই জটিল প্রজেক্ট এবং প্রচুর পরিমান অর্থ এখানে ইনভেস্ট করতে হয়। সরকারের এই পদক্ষেপের ফলে দেশের এয়ারফোর্স দারুণভাবে উপকৃত হবে বলে দাবি করেন বায়ু সেনার প্রাক্তন প্রমুখ। দিন দিন যেভাবে আন্তর্জাতিক স্তরে বাণিজ্যিক ও ইকোনমিক্যালি বিস্তার ঘটছে তাতে ভবিষ্যতে প্রতিবেশী দেশগুলির সাথে সংঘর্ষ হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে সামরিক বাহিনী, জলসেনা, বায়ুসেনাকে শক্তিশালী করা অবশ্যই প্রয়োজন।

Source link

Tags

Related Articles

Close